bn বাংলা
২রা জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
১৮ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আল-আকসায় জুমার নামাজ আদায় করেছেন ৭০ হাজার মুসল্লি

জেরুজালেমে অবস্থিত আল আকসা মসজিদে শুক্রবারের নামাজ আদায় করেছেন হাজার হাজার মুসল্লি। দীর্ঘদিন ধরে লকডাউনের কারণে বিধি-নিষেধ জারি থাকায় ওই মসজিদে মুসল্লিদের নামাজ আদায়ে সীমাবদ্ধতা ছিল। গত বছর থেকেই সীমিত আকারে সেখানে নামাজ আদায়ের অনুমতি পেয়েছেন তারা।

কিন্তু পবিত্র রমজান উপলক্ষে শুক্রবার আল-আকসায় আরও বেশি মানুষকে নামাজ আদায়ের সুযোগ দেয়া হয়েছে। ফলে রমজানের প্রথম জুমার নামাজ আদায় করতে পেরে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা। খবর আরব নিউজ।

ইসলাম ধর্মের তৃতীয় পবিত্র স্থান আল-আকসা মসজিদে শুক্রবার প্রায় ৭০ হাজার মুসল্লি নামাজ আদায় করেছেন যাদের বেশিরভাগই ইসরায়েলের আরব নাগরিক। ইসলামিক ওয়াকফের এক কর্মকর্তা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এই মসজিদটি মুসলিমদের কাছে যেমন পবিত্র তেমনি ইহুদিদের কাছে এটি টেম্পল মাউন্ট হিসেবে পরিচিত। সাধারণ সময়ে রমজানের জুমার নামাজে প্রায় দু’লাখ মুসল্লি আল-আকসায় নামাজ আদায় করেন। কিন্তু করোনা মহামারির কারণে সেই চিত্র অনেকটাই বদলে গেছে।

নামাজের সময় ইসরায়েলি পুলিশ সেখানে কঠোর নিরাপত্তা জোরদার রেখেছে। কিন্তু সেখানে আসা মুসলিম ধর্মপ্রাণ মানুষরা শান্তিপূর্ণভাবেই নামাজ আদায় করেছেন। কোনো ধরনে বিশৃঙ্খলা দেখা যায়নি।

এ বছর পশ্চিম তীরের ফিলিস্তিনি নাগরিকদের আল-আকসায় প্রবেশে সীমাবদ্ধতা জারি করেছে ইসরায়েল। মাত্র ১০ হাজার ফিলিস্তিনিকে জেরুজালেমে প্রবেশের অনুমতি দেয়া হয়েছে। তবে এদের সবাইকে ভ্যাকসিনের পূর্ণ ডোজ নেয়ার পরেই সেখানে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে।

৬৫ বছর বয়সী বারঘৌতি বলেন, তিনি এক বছরের বেশি সময় পর আল-আকসায় এসেছেন। প্রচণ্ড গরম থাকার পরেও সেখানে নামাজ আদায় করতে পারায় তিনি খুব খুশি।

রামাল্লাহর এই অবসরপ্রাপ্ত বাসিন্দা জানিয়েছেন, তিনি করোনার দুই ডোজ ভ্যাকসিনই গ্রহণ করেছেন। সে কারণেই আল আকসায় প্রবেশের অনুমতি পেয়েছেন।

এদিকে, শুক্রবার অনেক ফিলিস্তিনিকেই আল-আকসায় প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি। কিন্তু তারা ফিরে না গিয়ে ইসরায়েলি চেকপয়েন্টেই নামাজ আদায় করেছেন।

আরো দেখুন
error: Content is protected !!