bn বাংলা
১০ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কুমিল্লার বরুড়ায় শিক্ষকের বেতের আঘাতে মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিনিধি।।
কুমিল্লার বরুড়ায় শিক্ষকের বেতের আঘাতে এক মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে।

ওই ছাত্রের নাম মো. সিহাব। সে উপজেলার ঝলম ইউনিয়নের শশইয়া গ্রামের ডিলার বাড়ির শুকুর আলী ডিলারের ছেলে। সিহাব একই ইউনিয়নের মেড্ডা আল মাতিনিয়া নূরানী মাদ্রাসার ছাত্র।

মারধরের কয়েকদিন পর শুক্রবার (৫ আগস্ট) কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

নিহত সিহাব মাদরাসার ওই শিক্ষক আব্দুর রবের তত্বাবধানে নূরানী শিক্ষা গ্রহণ করছিল।

নিহত সিহাবের ভাবী সাবিকুন নাহার ঝুমুর জানিয়েছেন, সিহাবকে কয়েকদিন আগে মেড্ডা মাদ্রাসার শিক্ষক আব্দুর রব বেতের আঘাত করেন।

এসময় সিহাব অসুস্থ হয়ে পড়লে শিক্ষকরা তাকে ওষুধ এনে খাওয়ান। তাতেও সে সুস্থ না হওয়ায় গতকাল বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) মাদ্রাসা থেকে ফোন করে সিহাবের অসুস্থতার খবর জানানো হয়।

পরে আমার শ্বশুর মাদ্রাসায় গিয়ে তাকে বাড়িতে নিয়ে আসে। সিহাবের অবস্থা খারাপ হওয়ায় শুক্রবার সকালে তাকে বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিতে বলেন কিন্তু হাসপাতালে নেয়ার আগেই দুপুরের দিকে সিহাবের মৃত্যু হয়।

অভিযুক্ত শিক্ষক আব্দুর রবের বক্তব্য নেয়ার জন্য একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ না করায় বক্তব্য নেয়া যায়নি।

মেড্ডা আল মাতিনিয়া নূরানী মাদ্রাসার মুহতামিম (প্রধান) মাওলানা আহমেদ শফি বলেন, আমি তার পরিবারের সাথে কথা বলছি। পরে আপনাদের সাথে কথা হবে। এই কথা বলেই কল কেটে দেন।

ঝলম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বলেন, আমি স্থানীয় মেম্বারের কাছে শুনেছি মাদ্রাসার একজন শিক্ষক তাকে প্লেট দিয়ে আঘাত করেছে। মাদ্রাসায় খোঁজ নিয়ে শুনেছি এমন কিছুই, তবে সিরিয়াস কিছু হয়নি। আমি এখন ঘটনাস্থলে যাচ্ছি, মাদরাসা কমিটির সাথে কথা বলে দেখি কি করা যায়।

বরুড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকবাল বাহার মজুমদার বলেন, ঘটনা শুনেছি। এখনও কোন অভিযোগ পাইনি। ঘটনাস্থলে যাচ্ছি। গিয়ে জানাব।

আরো দেখুন
error: Content is protected !!