২৫শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
১০ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কুমিল্লায় গলায় রশি পেঁচানো অবস্থায় মিলল অর্ধ পুঁতে রাখা নিখোঁজ ইব্রাহীমের লাশ

নিউজ ডেস্ক।।
কুমিল্লার ভবানীপুর থেকে গলায় রশি পেঁচানো অবস্থায় অর্ধ পুঁতে রাখা এক প্রবাসীর শিশুপুত্র মো. ইব্রাহীমের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সে কুমিল্লার বরুড়া পৌর এলাকার পাঠানপাড়া গ্রামের দুবাই প্রবাসী মাসুদ মিয়ার ছেলে। গত সোমবার থেকে নিখোঁজ ছিল শিশুটি। নিহতের চাচাতো ভাই দুবাই ফেরত আল আমিনের বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার (৬ সেপ্টেম্বর) ভবানীপুর ইউনিয়নের পোমতলা গ্রামে আল আমিনের নানাবাড়ির পাশর একটি নির্জন স্থান থেকে ইব্রাহীমের পুঁতে রাখা লাশ উদ্ধার করে।

স্থানীয়রা জানায়, কয়েক বছর আগে প্রবাসী মাসুদ তার ভাতিজা আল আমিনকে দুবাই নিয়ে যায়। সম্প্রতি সেখানে চাচা-ভাতিজার মধ্যে নানা বিষয়ে বিরোধ সৃষ্টি হয় এবং মারামারির ঘটনাও ঘটে।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আল আমিন প্রায় দুমাস আগে দেশে ফিরে আসে। ধারণা করা হচ্ছে, প্রতিশোধ নিতে চাচাতো ভাই ইব্রাহীমকে হত্যার করে।

নিহত শিশুর মা জেসমিন বেগম বলেন, গত সোমবার সকালে মাদ্রাসা থেকে বাড়ি ফেরার পথে নিখোঁজ হয় ইব্রাহিম। পরে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে তাকে না পেয়ে থানা জিডি করা হয়।

এদিকে বুধবার দুপুরে পোমতলা এলাকায় অর্ধ পুঁতে রাখা এক শিশুর লাশ পাওয়া গেছে জানতে পেরে সেখানে গিয়ে ছেলের মরদেহ শনাক্ত করি।

শিশুর মামা জাকির হোসেন জানান, আমার ভগ্নিপতি মাসুদ মিয়া তার ভাতিজা আল আমিনকে দুবাই নিয়ে গিয়েছিল। সেখানে নানা বিষয় নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হলে দেশে ফিরে আসে। এর পর সে আমার ভাগনেকে অপহরণের পর নৃশংসভাবে হত্যা করে লাশ মাটিতে পুঁতে রাখে।

এ ব্যাপারে বরুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ হোসেন জানান, পারিবারিক বিরোধে প্রবাসী মাসুদের ভাতিজা আল আমিন শিশুটিকে অপহরণের পর হত্যা করে।

এ ঘটনায় নিহতের মা বাদী হয়ে মামলা করেছেন। এছাড়া জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ঘাতক আল আমিনের বাবা জামাল উদ্দিন ওরফে রিপনকে আটক করা হয়েছে।

আরো দেখুন
error: Content is protected !!