bn বাংলা
৭ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
২২শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কোভিড-১৯ স্থায়ী হলেও সম্মিলিত ভাবে এর প্রতিরোধ করতে হবে – এমপি বাহার

নিজস্ব প্রতিনিধি
জাতীয় যক্ষ্মা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির আওতায় ব্রাকের সহযোগিতায় সিভিল সার্জন অফিসের আয়োজনে কোভিড-১৯ সময়ে টিবি, এইচ আই বি ও ম্যালেরিয়া রোগের চিকিৎসা, সামাজিক কু-সংস্কার, বিদ্যমান বৈষম্য নিরসনে স্বাস্থ্য ও জনসচেতনতা মূলক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদস্য ও করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির উপদেষ্টা আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার বলেন, কোভিড-১৯ স্থায়ী হলেও আমাদের সকলকে সম্মিলিত ভাবে এর প্রতিরোধ করতে হবে।

এমপি বাহার বলেন, প্রথমে মনে হয়েছিল করোনাভাইরাস স্থায়ী হবে না, এখন আমরা সকলেই জানি যে আমাদের সকলকে এই ভাইরাসের সাথে যুদ্ধ করেই এগিয়ে যেতে হবে, চলতে হবে। তাই ব্যপকভাবে এই ভাইরাসের সংক্রামন থেকে নিরাপদ থাকতে স্বাস্থ্যবিধি অবশ্যই মেনে চলতে হবে, মাস্ক পড়তে হবে, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে এবং টিকা নিতে হবে।

সম্মিলিত ভাবে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ করা গেলে সংক্রামন রোধ করা সম্ভব হবে। মহামারির এই সময়ে সচেতনতামূলক সেমিনার আয়োজনের জন্য কুমিল্লা জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ও ব্রাককে ধন্যবাদ জানান।

সোমবার সকাল ১১ টায় কোভিড-১৯ সময়ে টিবি, এইচ আই বি ও ম্যালেরিয়া রোগের চিকিৎসা, সামাজিক কু-সংস্কার, বিদ্যমান বৈষম্য নিরসনে স্বাস্থ্য ও জনসচেতনতামূলক কর্মশালা কুমিল্লা ব্রাক সেন্টরের সেমিনার হলে অনুষ্ঠিত হয়।

কুমিল্লা সিভিল সার্জন অফিসের অয়োজনে কর্মশালায় কুমিল্লা সহ চট্টগ্রাম বিভাগের সকল জেলার সিভিল সার্জনগণ, বেসরকারি মেডিকেল কলেজের পরিচালক বৃন্দ, বিশেষজ্ঞ ডাক্তার, স্বাস্থ্য কর্মী, এনজিও, উন্নয়ন সংস্থা ও পেশাজীবী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, ঈমাম ও সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

সেমিনারে কোভিড-১৯ সময়ে টিবি, এইচ আই বি ও ম্যালেরিয়া রোগের চিকিৎসা, সামাজিক কু-সংস্কার, বিদ্যমান বৈষম্য নিরসন বিষয়ে ধারনা দেওয়া হয়। জাতীয় যক্ষ্মা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির আওতায় ব্রাকের সহযোগিতায় সিভিল সার্জন অফিস এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করছেন।

ব্রাক এর সহযোগিতায় কোভিড-১৯ পরবর্তী টিবি, এইচ আই বি ও ম্যালেরিয়া স্বাস্থ্য ও জনসচেতনতা সামাজিক কু-সংস্কার, বিদ্যমান বৈষম্য নিরসনে বিষয়ক বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়নের একটি পাওয়ার প্লান্ট উপস্থাপন করেন ডিরিক্টর (এমবিডিসি) এবং এল ডি (টিবিএল) এবং (এএসপি) প্রফেসর ডাঃ মোঃ সামিউল ইসলাম।

কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ডিজি প্রফেসর ডা. আবুল বাশার মোহাম্মদ খোরশেদ আলম। বক্তব্য রাখেন কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. মোস্তফ কালাম আজাদ, কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মোহাম্মদ মহিউদ্দিন, কুমিল্লা জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ মীর মোবারক হোসাইন। বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক হাসান শাহরিয়ার কবির, ব্রাকের সিনিয়র এরিয়া সুপারভাইজার (টিবি) মোহাম্মদ জাফরুল আলম।

আরো দেখুন
error: Content is protected !!