bn বাংলা
৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
১৫ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সর্বোচ্চ সতর্কতায় সেখানে পূজা উদযাপন করা হবে -বাহার

নিজস্ব প্রতিবেদক।।
গেল বছর দুর্গাপূজায় উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্যে কুমিল্লার একটি পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন শরিফ পাওয়াকে কেন্দ্র করে কয়েকটি জেলায় ব্যাপক সহিংসতা হয়।

নানুয়ার দিঘির পাড়ের ওই মণ্ডপে চলে ব্যাপক ভাঙচুর, আক্রান্ত হয় নগরীর আরও বেশকিছু পূজামণ্ডপ। পরে সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে চাঁদপুর, নোয়াখালী, চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন জেলায়। এর জেরে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে ঘটে প্রাণহানীর ঘটনাও।

এ ঘটনার প্রায় বছরখানেক পর নানুয়ার দিঘির পাড়ের অস্থায়ী সেই পূজামণ্ডপে আবার দুর্গাপূজা উদযাপন হতে যাচ্ছে।

এবার সর্বোচ্চ সতর্কতায় সেখানে পূজা উদযাপন করা হবে বলে জানিয়েছেন কুমিল্লা-৬ আসনের সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দীন বাহার।

কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে বুধবার দুপুরে শারদীয় দুর্গা উৎসব উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলাসহ অন্যান্য বিষয়ে প্রস্তুতিমূলক এক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

এ সময় কোনো ষড়যন্ত্র হলে ষড়যন্ত্রকারীদের কঠোর হাতে দমন করা হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন আওয়ামী লীগের এই নেতা।

তিনি বলেন, ‘গত বছর আমি দেশে ছিলাম না। তখন ষড়যন্ত্রকারীরা ষড়যন্ত্র করে পূজামণ্ডপে হামলা করেছে। আমি দেশের বাইর থেকে পরিস্থিতি সামাল দেয়ার চেষ্টা করেছি।

এ বছর আমরা সর্বোচ্চ সতর্ক আছি। নানুয়ার দিঘির পাড়ে অবশ্যই পূজা হবে। এবার যদি কেউ কোনো পূজামণ্ডপে হামলা করে, সে পালিয়ে বাঁচতে পারবে না।

‘এবার যেন নির্বিঘ্নে পূজা উদযাপন করা যায়, সে জন্য আওয়ামী লীগের ও অঙ্গসংগঠনের পক্ষ থেকে স্বেচ্ছাসেবী দেয়া হবে। ভয়ের কোনো কারণ নেই।’

সভায় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শাহাদাৎ হোসেন, পুলিশ সুপার মো. আবদুল মান্নান, র‍্যাবের কমান্ডার মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোসেনসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, এ বছর কুমিল্লা জেলায় সিটি কর্পোরেশনেরসহ ৭৯৫টি মণ্ডপে শারদীয় দুর্গোৎসব উদযাপিত হবে।

আরো দেখুন
error: Content is protected !!