bn বাংলা
২৭শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আরেফিন শিমুলের’ কবিতা -“মৃত্যু ও আমি”

“মৃত্যু ও আমি”

আরেফিন শিমুল

আমার দু’হাতের তালুতে এখন মৃত্যু নাচে
আমার ডানে মৃত্যু বায়ে মৃত্যু
আমিতো মৃত্যুপুরীতেই বাস করি
আমার কোন ভয় নেই…
ঘুমোতে যাই তাকে নিয়ে
জেগে দেখি সে পাশেই দাঁড়িয়ে
একসময় বাইরে গেলেও
মৃত্যু আমার পায়েপায়ে হাঁটতো।

এখন তো ঘরেই থাকি…
জানালায় চোখ রাখলেই তার সাথে চোখাচোখি
আয়নায় নিজেকে দেখি পাশাপাশি তাকেও দেখি
আমার ঘরের চেয়ার, টেবিল, খাট
এমনকি বেসিনেও সে…
আমার শখ করে লাগানো
মানি প্লান্টের পাতায় পাতায় ভর করে
সে আমার ব্যালকনিতে পায়চারি করে
আমি অবাক হই না।

তার সাথে আমার বিরাট সখ্যতা
জন্মের পরই যে তাকে চিনেছি
আমি জেনেছি মৃত্যুকে ভয় পাবার কিছু নেই
সেই তো একদিন আমাকে
মহাকালের পথ দেখাবে
তার হাত ধরেই যাবো কোন স্বর্গে কিংবা…
থাক ওটা আর ভাবতে চাই না
সেই আমার পরম বন্ধু…
ছায়া হয়ে যেন আমাকে পাহারা দিচ্ছে।

দিন গুণছে ক্ষণ গুণছে
কখন সময় হবে…
সেই সাথে শেষ হবে তার দায়িত্ব
মাঝেমাঝে কথাও হয় তার সাথে
শরীরটা যখন ভীষণ খারাপ লাগে
তখন চকচকে চোখে মৃত্যু হাসে…
বলি এখন নয়
আরো একটু সময় দাও
কিছুটা গুছিয়ে নেই।

তাহলে কিসের ভয় মৃত্যুকে
যাকে ফেরাতে পারি না তাড়াতে পারি না
তাকে ভয় নয়, একটু যত্নেই আগলে রাখি
সব পাঠ চুকিয়ে একদিন চলে যাবো তার সাথেই।

মৃত্যু আছে বলেই জীবন এত কাঙ্খিত
তাইতো জীবনকে একটু উপভোগ করি
কিন্তু ঘরে বসে বসে কিইবা আর উপভোগ করা
তবুও একটু সাজতে ইচ্ছে হয়,
ভালোবাসতে ইচ্ছে হয়…
ঠোঁট দু’টো রাঙাতে ইচ্ছে হয়
প্রিয়জনের সাথে ভালোমন্দ খেতে ইচ্ছে হয়
এত এত ইচ্ছের জলাঞ্জলি দিয়ে কী আর
তার সাথে যেতে ইচ্ছে হয়? হয় না।

তাই মৃত্যুকে বলি অপেক্ষা করো
শেষ পরিণতি তোমার সাথেই
তোমাকে আমার কোন ভয় নেই।

আরো দেখুন
error: Content is protected !!