bn বাংলা
২৮শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
১৪ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরের নির্মাণ সামগ্রী চুরি

চৌদ্দগ্রাম প্রতিবেদক।।
কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক প্রদত্ত ভূমিহীনদের জন্য মুজিব বর্ষের উপহারের ঘর নির্মাণকালে বাধা প্রদানসহ নির্মাণ সামগ্রী চুরির অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় কিশোরদের বিরুদ্ধে।

চাঁদা না পেয়ে স্থানীয় কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা এ ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে বলে থানায় অভিযোগ করেছেন সংশ্লিষ্ট নির্মাণ ঠিকাদার।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গত ১৬ জানুয়ারি স্থানীয় কিশোর গ্যাংয়ের সদস্য উপজেলার আলকরা ইউনিয়নের শিলরী গ্রামের সায়েদুল হকের ছেলে সাহেদ, নুরুল আলমের ছেলে অনিক মো: ইয়াছিনের ছেলে বাবু, আব্দুর রশিদের ছেলে তারেক, বেলাল হোসেনের ছেলে আকাশ, আলমগীর হোসেনের ছেলে ইমন, দেলোয়ার হোসেনের ছেলে আব্দুল মান্নান, ভাজনকরা গ্রামের আলী হোসেনের ছেলে রুপু, আলমগীর হোসেনের ছেলে আরিয়ান, শহিদুল ইসলাম সেলিমের ছেলে নিয়ন, কুলাশার গ্রামের দুলালের ছেলে আরাফতসহ অজ্ঞাতনামা আরও কতিপয় কিশোর সঙ্গবদ্ধ হয়ে শিলরী গ্রামে বজু মৌলভীর বাড়ির সামনে ভূমিহীনদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর নির্মাণ কাজে বাধা প্রদান করে মোটা অংকের চাঁদা দাবি করে।

দাবিকৃত চাঁদা না পেয়ে তারা ঐদিন রাতের যে কোনো সময় ওই স্থানে তালাবদ্ধ একটি কাঁচারী ঘরে সংরক্ষিত নির্মাণ কাজে ব্যবহৃত একটি বৈদ্যুতিক মটর, আনুমানিক ১ টন রড, ৩০ বস্তা সিমেন্ট চুরি করে নিয়ে যায়।

পরদিন মঙ্গলবার সকালে নির্মাণ শ্রমিকরা কাজে গেলে বিষয়টি জানতে পেরে ঠিকাদার গোলাম সরওয়ার জাশেদকে অবহিত করলে তিনি ঘটনাস্থলে এসে তাৎক্ষণিক বিষয়টি আলকরা ইউপি চেয়ারম্যান মাইন উদ্দিন ভূঁইয়াসহ চৌদ্দগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করেন।

পরে তিনি থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে দোষিদের আইনের আওতায় আনার জোর দাবি জানান।

এ বিষয়ে নির্মাণ ঠিকাদার গোলাম সরওয়ার জাশেদ জানান, ‘শিলরী, ভাজনকরা ও কুলাশার গ্রামের কতিপয় কিশোর ভূমিহীনদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর নির্মাণ কাজে বাধা প্রদান করে বিভিন্ন অজুহাতে চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না দেয়ায় তারা নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিবে বলে এবং আমাকে দেখে নেয়ার হুমকি প্রদান করে।

পরে সোমবার রাতে তারা রড-সিমেন্টসহ লক্ষাধিক টাকার নির্মাণ সামগ্রী চুরি করে নিয়ে যায়। এর আগেও দুইবার সিমেন্ট চুরি হয়েছে। জনশ্রুতি রয়েছে তারা সকলেই কিশোর গ্যংয়ের সদস্য। বিষয়টি আমি স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, ইউপি চেয়ারম্যানের মাধ্যমে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানিয়েছি। আশা করছি এ বিষয়ে তাঁরা কার্যকর পদক্ষেপ নিবেন।’

এ ব্যাপারে আলকরা ইউপি চেয়ারম্যান মাইন উদ্দিন ভূঁইয়া বলেন, ‘আলকরা ইউনিয়নের শিলরীতে ভূমিহীনদের জন্য নির্মাণাধিন ঘরের নির্মাণ সামগ্রী চুরি হয়েছে। জানতে পেরেছি ঘটনাটি স্থানীয় কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা করেছে। এলাকাবাসী চায় কিশোর গ্যং নির্মূল হোক। আমি প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করছি।’

এ বিষয়ে চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শুভ রঞ্জন চাকমা বলেন, ‘ঠিকাদারের অভিযোগের প্রেক্ষিতে এসআই তোফায়েলকে ঘটনার তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে সত্যতা পাওয়া গেলে দোষিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

আরো দেখুন
error: Content is protected !!