bn বাংলা
৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কুমিল্লা সদরে কৃষি প্রনোদনার বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক।।
কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার প্রান্তিক কৃষকের মাঝে চলতি মৌসুমের আউশ উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে কৃষি প্রণোদনার অংশ হিসাবে বিনামূল্যে সার ও বীজ বিতরণ করেছে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে গতকাল মঙ্গলবার সকালে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট মো.আমিনুল ইসলাম টুটুল। উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকিয়া আফরিন এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান তারিকুর রহমান জুয়েল। স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা কৃষি অফিসার আউলিয়া খাতুন। এ সময় উপজেলা কৃষি স¤প্রসারণ অফিসার মাহফুজা আহম্াদ সহ অনান্য মাঠ পর্যায়ের কৃষি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, খরিপ-১/ ২০২১-২২ অর্থবছরের কৃষি প্রনোদনা কর্মসূচীর আওতায় উফশী আউশ আবাদ বৃদ্ধির লক্ষ্যে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে কৃষি প্রনোদনার বিনা মূল্যে সার ও বীজ বিতরন করা হয়। প্রত্যেক কৃষকের মাঝে ৫ কেজি বীজ, ২০ কেজি ডিএপি, ১০ কেজি এমওপি সার বিতরন করা হয়। জনসমাগম এড়াতে সীমিত পরিসরে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন অতিথিরা। পর্যায়ক্রমে উপজেলাধীন ৬ ইউনিয়নের ৩শ জন কৃষকের মাঝে এ বিনামূল্যের বীজ ও সার বিতরণ করা হবে।

এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট মো.আমিনুল ইসলাম টুটুল বলেন, চলমান করোন মহাদুর্যোগে কৃষকরা খাদ্য উৎপাদনের মাধ্যমে অনেকটা জাতির অন্নদাতার ভূমিকা পালন করছেন। কৃষক-শ্রমিকরা দেশের অর্থনীতির চাকাকে সচল রেখেছেন। আগের সরকারের আমলে সারের জন্য কৃষক জমি চাষ করতে সমস্যায় পড়তে হতো। বিএনপি আমলে সারের জন্য কৃষককে জীবন দিতে হয়েছে। এখন আর সেই দিন নেই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জাতির জনকের কন্যা ঘোষনা অনুসারে কৃষকদের মাঝে এখন কৃষি প্রনোদনা হিসেবে বিনামূল্যে সার বিতরণ করা হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকিয়া আফরিন বলেন, দেশের করোনা ভাইরাসজনিত দূর্যোগে বর্তমান পরিস্থিতিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যে নির্দেশনা প্রদান করেছেন তা সবাই মিলে বাস্তবায়ন করতে হবে। কোনো কৃষি জমি পতিত না রেখে দেশের খাদ্য উৎপাদন অব্যাহত রাখতে হবে। জনসমাগম এড়াতে আমরা উপজেলায় এ প্রনোদনা কর্মসূচির উদ্বোধন করেছি। ইউনিয়ন পর্যায়ে কৃষকদের মাঝে ধাপে ধাপে এ বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ করা হবে।

উপজেলা কৃষি অফিসার আউলিয়া খাতুন বলেন, আগামীতে যেন দেশে খাদ্য সংকট না হয় সেজন্য সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক আউশ উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে সঠিক সময়ে বীজতলা তৈরি, রোপণ, সেচ সহ শ্রমিক সংকট কাটিয়ে ওঠার জন্য কৃষির যান্ত্রীকিকরণ ও অন্যান্য ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বিভিন্ন কৌশল নিয়ে কুমিল্লা সদর উপজেলা কৃষি বিভাগ সবসময় কৃষকের পাশে আছি। বর্তমান করোনা সংকটেও কৃষি উৎপাদন যেন ব্যাহত না হয় আমাদের কৃষি বিভাগের কর্মীরা সার্বক্ষনিক মাঠে কাজ করছে।

আরো দেখুন
error: Content is protected !!