bn বাংলা
৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

চরে আটকা পড়া ১২ পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা

নিজস্ব প্রতিনিধি

স্থানীয় এক গণমাধ্যমকর্মী ফেসবুক পোস্টে বিষয়টি তুলে ধরলে মঙ্গলবার কেলে পরিবারগুলোর জন্য খাদ্য নিয়ে যান আদর্শ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাকিয়া আফরিন। প্রতিটি পরিবারকে দেয়া হয়েছে ১০ কেজি চাল, এক কেজি ডাল, এক লিটার ভোজ্যতেল, আলু দুই কেজি, লবণ এক কেজি, সেমাই এক প্যাকেট এবং এক কেজি চিনি।

চাঁদপুরে নদীভাঙনের শিকার হয়ে কুমিল্লায় গোমতীর চরে আটকা পড়া ১২টি পরিবারের জন্য ত্রাণ পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এই পরিবারগুলো গোমতী নদীর আদর্শ সদর উপজেলার আমতলী এলাকায় থাকলেও যেতে চান রাঙ্গামাটি। তবে গত ৫ এপ্রিল থেকে লকডাউনে গণপরিবহন বন্ধ থাকায় তারা আটকে যান।

তারা কর্মহীন হয়ে পড়ায় খাবার সমস্যায় পড়েছেন। অর্ধাহার-অনাহারে দিন কাটছিল।

স্থানীয় এক গণমাধ্যমকর্মী ফেসবুক পোস্টে বিষয়টি তুলে ধরলে মঙ্গলবার কেলে পরিবারগুলোর জন্য খাদ্য নিয়ে যান আদর্শ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাকিয়া আফরিন।

তিনি বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতিতে দেশের নিম্ন আয়ের বিভিন্ন পেশা-শ্রেণির মানুষের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী খাবার উপহার দিচ্ছেন। কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের তত্ত্বাবধানে আমরা খাদ্য উপহার পৌঁছে দিচ্ছি।’

প্রতিটি পরিবারকে দেয়া হয়েছে ১০ কেজি চাল, এক কেজি ডাল, এক লিটার ভোজ্যতেল, আলু দুই কেজি, লবণ এক কেজি, সেমাই এক প্যাকেট এবং এক কেজি চিনি।

চলমান লকডাউন বাড়ানো হয়েছে আগামী ১৬ মে পর্যন্ত। ফলে পরিবারগুলোকে এখানেই ঈদ করতে হবে।

যে পরিমাণ ত্রাণ দেয়া হয়েছে, সেটি বড়জোর এক সপ্তাহ চলবে। এরপর ওই পরিবারগুলোর কী হবে- জানতে চাইলে ইউএনও বলেন, ‘আমরা জানতে পেরেছি আরও দুটি সংগঠন তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে। আমরা যে সহায়তা দিয়েছি, সেটি প্রধানমন্ত্রীর প্রথম পর্যায়ের বরাদ্দ। সামনে আরও বরাদ্দ আসবে।

‘আর পরিবারগুলো যদি আমাদের বলে রাঙ্গামাটি পৌঁছে দেয়ার ব্যবস্থা করতে, তাহলে আমরা সেটা বিবেচনা করব।’

আরো দেখুন
error: Content is protected !!